তারিখঃ ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

লকডাউন আরো ১ সপ্তাহ কার্যকর রাখার বিশেষ অনুরোধ

স্টাফ রিপোটার:  চলমান কঠোর বিধিনিষেধ ৫ আগস্ট শেষ হবে। তারপর কী ? আমাদের জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এই বিধিনিষেধ কঠোরভাবেই আরো ১ সপ্তাহ, অর্থাৎ টানা ৩ সপ্তাহ কার্যকর রাখার পক্ষে। এর ফলে সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে কমে যাবে বলে তারা আশাবাদী। আপনার কাছে বিশেষ অনুরোধ, টানা ৩ সপ্তাহ কঠোরতম বিধিনিষেধ চলার পরেও, ৪র্থ সপ্তাহে হঠাৎ করে সর্ম্পূণ বিধিনিষেধ একই সাথে প্রত্যাহার না করাই সঠিক হবে। ৪র্থ, ৫ম এবং ৬ষ্ঠ সপ্তাহে পরিস্থিতির পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার বিশ্লেষণ সাপেক্ষে ধাপে ধাপে কিছু কিছু করে নিষেধাজ্ঞাগুলো প্রত্যাহার করলে ভালো হবে। যখন বিশেষ বিধিনিষেধগুলো প্রত্যাহার করা হবে। তারপরও মাস্ক ব্যবহারে কড়াকড়ি এবং যে কোনো পাবলিক স্পেসে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা কঠোরভাবে প্রতিপালন নিশ্চিত করতে হবে।  একই সাথে পারিবারিক, সামাজিক ও প্রতিষ্ঠানিক সকল সম্মিলনীর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরো অন্তত ২ মাস বহাল রাখতে হবে।  বিভিন্ন পর্যায়ের বিধিনিষেধের এই সময়কালে মানুষকে ব্যাপক উদ্বুদ্ধকরণ প্রচারণার মাধ্যমে এ সমস্ত বিষয়ে সজাগ ও সচেতন রাখতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে সক্রিয় রাখতে হবে। বাংলাদেশ এখন করোনা টিকা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ২ মাসের অনিশ্চয়তা কাটিয়ে বিভিন্ন সূত্র থেকে পর্যাপ্ত টিকা নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়েছে। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী আপনি ইতিমধ্যে গ্রাম পর্যন্ত সারাদেশে ব্যাপকভাবে টিকা কার্যক্রম ছড়িয়ে দিতে নির্দেশ দিয়েছেন এবং তদানুসারে আমরা দেখছি কাজ চলছে। আপনাকে অনেক শুভেচ্ছা। সূত্র- আমাদের সময়.কম।

পোষ্টটি শেয়ার করুনঃ

About Author

আড়াইহাজারের সময়

আড়াইহাজারের সময় হলো সবচেয়ে দ্রুত জনপ্রিয় হওয়া ওয়েব পোর্টাল। আড়াইহাজারের মানুষের সবচেয়ে বিশ্বস্ত পত্রিকা। আড়াইজারের সময়ের সাথেই থাকুন। আমরা সর্বদা সত্য প্রকাশে অবিচল।

Comments are closed.